আর থাকছে না হেডফোনের জ্যাক।

জোর গুজব শোনা যাচ্ছে, আইফোনের পরবর্তী সংস্করণে থাকবে না ৩ দশমিক ৫ মিলিমিটার হেডফোন জ্যাক। এমনকি আরো কিছু প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানও হেডফোন জ্যাক ছাঁটাই করার পক্ষে। কিছু অ্যানড্রয়েড স্মার্টফোন এরই মধ্যে হেডফোন জ্যাক ছাঁড়াই বাজারে এসেছে। কিন্তু জ্যাক সরিয়ে নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কি শেষ হয়ে যাচ্ছে স্মার্টফোনে হেডফোন গান শোনার সুবিধা? কিংবা শুধু ওয়্যারলেস হেডফোনই হতে যাচ্ছে একমাত্র ভরসা?

তবে অভয়বাণী শোনাচ্ছে ইন্টেল। তাদের ‘ইন্টেল ডেভেলপার ফোরাম’ (আইডিএফ) ২০১৬ সম্মেলনে নানা আলোচনা এবং মতামতের মধ্যে উঠে আসে ইউএসবি টাইপ সি-এর ভবিষ্যৎ। ইউএসবি টাইপ-সি যে অচিরেই ৩ দশমিক ৫ মিলিমিটার জ্যাকের জায়গা দখল করবে, সে বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন সম্মেলনে আসা বিশেষজ্ঞরা। প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট ম্যাশেবলের এক প্রতিবেদেনে এ খবর জানানো হয়েছে।

ইন্টেলের দুজন কম্পিউটার আর্কিটেক্ট রহমান ইসমাইল ও ব্র্যান্ড স্যান্ডার মনে করেন, নতুন ধরনের ইউএসবি অডিও স্ট্যান্ডার্ড ভবিষ্যতে আসবে এবং তা ইউএসবি টাইপ সি-এর ক্রমাগত উন্নতির ফলাফল হবে। ৩ দশমিক ৫ মিলিমিটার হেডফোন জ্যাকের চেয়ে সব দিক থেকে উন্নত মানের সেবা দিতে সক্ষম হবে ইউএসবি টাইপ-সি।

তবে কেনই বা বহুল প্রচলিত হেডফোন জ্যাকের প্রতি এত কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছেন স্মার্টফোন নির্মাতারা? স্মার্টফোন নির্মাতারা চাইছেন, তাঁদের স্মার্টফোনের পুরুত্ব আরো কমাতে। এ ক্ষেত্রে একটি বড় বাধা ৩ দশমিক ৫ মিলিমিটার জ্যাক। অন্যদিকে এই জ্যাক ফোনের অভ্যন্তরে যতখানি জায়গা দখল করে, সে জায়গাটুকু আরো বেশি দরকারি কাজে ব্যবহার করা সম্ভব হবে।

তা ছাড়া এই অডিও জ্যাক মূলত অ্যানালগ কানেক্টর। মূল শব্দ শুধু ফোন থেকে হেডফোনে স্থানান্তর করার বাইরে অন্য কিছু করার ক্ষমতা নেই এটির। অন্যদিকে ইউএসবি টাইপ-সি ‘প্রিপ্রসেসড সাউন্ড’ স্থানান্তর করতে পারে। যার ফলে সাধারণ মানের হেডফোনেও ‘নয়েজ ক্যানসেলেশন’ কিংবা ‘ভার্চুয়াল সাউন্ড’-এর মতো ফিচার উপভোগ করা সম্ভব।

তবে ইউএসবি টাইপ-সি-এর একটি নেতিবাচক দিক হিসেবে দেখা হচ্ছে মাল্টিটাস্কিংয়ের অভাবকে। একই সঙ্গে ফোন চার্জ দেওয়া এবং হেডফোনে গান শোনা সম্ভব হবে না ইউএসবি টাইপ-সি পোর্টের মাধ্যমে।

স্যামসাংয়ের নোট ৭, এলজি জি৫ এবং হুয়াহুয়ে পি৯-এর মতো ফ্ল্যাগশিপগুলো এরই মধ্যে ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট ব্যবহার করেছে। ধারণা করা হচ্ছে, অ্যাপল তাদের পরবর্তী আইফোনে ইউএসবি টাইপ-সি-এর পরিবর্তে ডিজিটাল লাইটেনিং কানেক্টর ব্যবহার করতে যাচ্ছে।

সুত্রঃ ইন্টারনেট।



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *