অ্যালোভেরায় পরিচর্যা।

ত্বকের শুষ্কতা দূর করে ত্বককে মসৃণ রাখতে এলোভ্যারা চমৎকার একটি উপাদান।ঘৃতকুমারী ত্বকের পরিচর্যায় খুব কার্যকরী একটি ভেজষ উপদান হিসেবে আজকাল বেশ ব্যবহৃত হচ্ছে। বিভিন্নভাবে ঘৃতকুমারী দিয়ে ত্বকের পরিচর্যা করা যায়। জেনে নিন তারই কয়েকটি পদ্ধতি।

স্বাভাবিক ত্বকের জন্য : ৪ টেবিল চামচ ঘৃতকুমারীর জেল ও ১ চা চামচ আমণ্ড অয়েল একসাথে মিশিয়ে রেখে দিন। ময়েশ্চারাইজার হিসেবে নিয়মিত ব্যবহার করুন।

মিশ্র ত্বকের জন্য : ৪ টেবিল চামচ ঘৃতকুমারীর জেল, ৩ ফোঁটা টি পাইন অয়েল ও ১ টেবিল চামচ এসেনসিয়াল অয়েল এক সাথে মিশিয়ে নিন। মিশ্র ত্বকের জন্য এই মিশ্রণ ময়েশ্চারাইজার হিসেবে খুবই ভালো।

শুষ্ক ত্বকের জন্য : ৪ চামচ ঘৃতকুমারীর জেল, কয়েক ফোঁটা রোজ অয়েল, এসেনসিয়াল আমণ্ড অয়েল ও ১ টেবিল চামচ এসেনসিয়াল অলিভ অয়ের নিন। ভালোভাবে মেশান। শুষ্ক ত্বকে ময়েশ্চারাইজার হিসেবে ব্যবহার করুন।

বডি ময়েশ্চারাইজার : আধা কাপ দুধ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ ও ১ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল একসাথে মিশিয়ে বোতলে ভরে ফ্রিজে রেখে দিন। গোসলের আগে মেখে আধা ঘণ্টা পর ধুয়ে ফেলুন। বডি ময়েশ্চারাইজার হিসেবে এটি খুব ভালো কাজ করে।

মুখে ময়েশ্চারাইজার : ১ টেবিল চামচ এক্সট্রা ভার্জিন অলিভ অয়েল নিন। কোকোনাট অয়েলও নিতে পারেন। এর সাথে ১ চা চামচ মধু ও ১ চা চামচ লেবুর রস নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। প্রতিদিন মুখের ত্বকে ব্যবহার করুন। ফ্রিজে রেখেও ব্যবহার করতে পারেন।

নাইট আই ক্রিম : ২ চামচ অ্যালোভেরা আলু (কোরানো) সিকি কাপ, ১ টেবিল চামচ চায়ের পাতা ও ১ চা চামচ তিলের তেল নিন। সব উপকরণ একসাথে ফুড প্রসেসরে নিয়ে মিক্স করুন। প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে চোখের ওপর লাগিয়ে রাখুন। ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এটি আপনার নাইট আইক্রিম হিসেবে কাজ করবে।

ত্বককে সতেজ রাখার প্যাক : শসা কুচি আধা কাপ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, অলিভ অয়েল ২ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা ২ টেবিল চামচ একসাথে ফুড প্রসেসরে দিয়ে মিশ্রণ তৈরি করুন। ফ্রিজে রেখে ব্যবহার করুন। আপনার ত্বক হবে সতেজ ও মসৃণ। নারকেল, তিল বা আমণ্ড অয়েলের মতো হালকা তেল নিন ১০ টেবিল চামচ। এর সাথে ২ চামচ অ্যালোভেরা জেল মেশান। গোসলের পর ময়েশ্চারাইজার হিসেবে ব্যবহার করুন।



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *